মডেল টেষ্ট পরীক্ষার কৃষি শিক্ষা সৃজনশীল প্রশ্ন

অষ্টম শ্রেণী মডেল টেষ্ট পরীক্ষা- ২০২১

 

 

বিষয়ঃ কৃষি শিক্ষা (সৃজনশীল প্রশ্ন) সময়ঃ ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট। পূর্ণমানঃ ৬০।

(দ্রষ্টব্য: প্রত্যেক বিভাগ থেকে কমপক্ষে ১টি করে মোট ৬টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।)

 

ক-বিভাগ

নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

১। করিম সাহেব প্রতিবছর কৃষি অফিস থেকে ধানবীজ সংগ্রহ করে ধান চাষ করে থাকেন এবং ভালো ফলন পান। এ বছর কৃষি অফিস থেকে বীজ সংগ্রহ করতে না পেরে তার এক প্রতিবেশী চাষীর নিকট থেকে বীজ এনে জমিতে রোপন করেন। ধান রোপনের কয়েক মাস পরে একই ক্ষেতে তিনি লম্বা, মাঝারি ও খাটো এই তিন ধরনের ধান গাছ বিক্ষিপ্তভাবে ছড়িয়ে থাকতে দেখেন। এতে তিনি কিছুটা চিহ্নিত হয়ে পড়েন।

(ক) বীজ কি?

(খ) অধিক উৎপাদনের জন্য উন্নত বীজের প্রয়োজন হয় কেন?

(গ) করিম সাহেবের একই খেতে তিন জাতের ধান গাছ জমানোর কারণ ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) করিম সাহেবের চিহ্নিত হওয়ার কারণ বিশ্লেষণ কর।

২। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

তার গ্রামের বাড়িতে ফলের বাগান করার চিন্তা করেন তবে জমির অবস্থান ও বৈশিষ্ট্যের কথা চিন্তা করে সেখানে তিনি চাউলা খাজা কাঁঠাল চাষের সিদ্ধান্ত নেন। অতঃপর একখন্ড বর্গাকার জমি প্রস্তুত করে নার্সারি থেকে ১৬টি চারা নিয়ে আসেন।

(ক) চাউলা বা খাজা কাঁঠাল কি?

(খ) মামুনের জমিটির একটি বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা কর।

(গ) নক্শা একে মামুনের তৈরী কাঁঠাল বাগানটি উপস্থাপন কর।

(ঘ) কাঁঠাল চাষের মাধ্যমে মামুন কিভাবে অর্থনৈতিক সফলতা পেতে পারে বিশ্লেষণ কর।

খ-বিভাগ

৩। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

রাবেয়া সংকর জাতের একটি বাছুর সহ গাভী ক্রয় করে। সে নিজ জমির উৎপাদিত নেপিয়ার ঘাস গাভীকে খাওয়ায় এবং যতেœর সাথে লালন-পালন করে। বন্যার সময় সে বেশী করে কচুরিপানা খাওয়ালে গাভীটি অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং দুধ উৎপাদন কমে যায়।

(ক) সংকর জাত কি?

(খ) রাবেয়ার গাভীটি অসুস্থতার জন্য বন্যা কিভাবে দায়ী?

(গ) বন্যার পূর্বে রাবেয়া কোন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করলে ভবিষ্যতে সমস্যার সম্মুখীন হবে না, তা বর্ণনা কর।

(ঘ) গাভীর মুখে দিলে ঘাস, দুধ পাবে বার মাস।’ উক্তিটি মূল্যায়ন কর।

৪। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

রহিম সাহেব ছাগল ও ভেড়ার অর্থনৈতিক গুরুত্ব তুলনা করে তিনি নিজ গৃহে ভেড়া পালন শুরু করলেন। বর্তমানে তার ২৫টি ভেড়া রয়েছে। ভেড়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় তিনি ভেড়ার জন্য আলাদা একটি আদর্শ ঘর তৈরীর পরিকল্পনা করেছেন।

(ক) ভেড়ার একটি উল্লেখ যোগ্য জাতের নাম লিখ।

(খ) ভেড়ার ঘর দক্ষিণমুখী হওয়ার ১টি কারণ বর্ণনা কর।

(গ) রহিম সাহেবের ভেড়াগুলোর জন্য একটি আদর্শ খামারের নক্শা প্রনয়ন কর।

(ঘ) ছাগল পালনের পরিকল্পনা বাদ দিয়ে রহিম সাহেবের ভেড়া পালনের সিদ্ধান্তটির অর্থনৈতিক গুরুত্ব বিশ্লেষণ কর।

গ-বিভাগ

৫। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

গ্রামের দরিদ্র গৃহবধু রুমি যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে ১০০টি ২০ সপ্তাহ বয়সের উন্নতজাতের হোয়াইট লেহ হর্ণ মুরগী দিয়ে খামার স্থাপন করলেন। যথাযথ খামার ব্যবস্থাপনায় অল্প দিনেই তার খামার থেকে ডিম পেতে শুরু করলো। সকল ডিম এক সাথে বিক্রি করতে না পারায় তিনি সমস্যায় পড়লেন এবং কিছু ডিম পচে নষ্ট হয়ে গেল তিনি চিন্তিত হয়ে পশু কর্মকর্তার পরামর্শে দেশীয় পদ্ধতিতে ডিম সংরক্ষণ করে সমস্যার সমাধান করলেন।

(ক) ডিম সংরক্ষণ কী?

(খ) পশু কর্মকর্তা রুমিকে দেশীয় পদ্ধতিতে ডিম সংরক্ষনের পরামর্শ দানের কারণটি ব্যাখ্যা কর।

(গ) রুমির খামারের ১ সপ্তাহে উৎপাদিত সকল ডিম সোডিয়াম সিলিকেট দ্বারা সংরক্ষনের পদ্ধতিটি ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের খামারগুলোতে গৃহবধু রুমির ডিম সংরক্ষণ পদ্ধতি কী ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে, মতামত দাও।

৬। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

রফিক নিজেদের ৩টি পুকুরে মিশ্র চাষ পদ্ধতিতে কার্প জাতীয় মাছের চাষ শুরু করল। যথাযথভাবে পুকুর প্রস্তুত করে পরিমিত সংখ্যায় পোনা মজুদ করল। পোনা মজুদের পর সার প্রয়োগ, সম্পূরক খাদ্য সরবরাহ করার পরও রফিক দেখল তার পুকুরের মাছের বৃদ্ধি আশানুরূপ হচ্ছে না। এমন অবস্থায় সে এলাকার মৎস্য কর্মকর্তার শরনাপন্ন হলে তিনি পুকুরগুলো পর্যবেক্ষন করে চুন প্রয়োগের পরামর্শ দিলেন। বছর শেষে রফিকের মাছ চাষ বেশ লাভবান হল।

(ক) কার্প জাতীয় মাছের মিশ্র চাষ কী?

(খ) পুকুরে পোনা মজুদের পরিমিত সংখ্যা বলতে কী বোঝ?

(গ) মৎস্য কর্মকর্তা রফিকের পুকুরে চুন প্রয়োগের পরামর্শ দিলেন কেন?

(ঘ) রফিকের মাছ চাষের যথাযথ পদ্ধতি তার এলাকার মাছ চাষীদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে কী ভুমিকা পালন করবে তা ব্যাখ্যা কর।

৭। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

শফিক মিয়া তাঁর গ্রামের এক পুকুরের পাশ দিয়ে হাঁটার সময় লক্ষ্য করলেন পুকুরের উপর একটি ঘর। তার মনে উৎসাহ জাগল ঘরটি কিভাবে কি উদ্দেশ্যে তৈরী হয়েছে তা জানার জন্য। তিনি ঘরের নিকটে গেলেন এবং ঘরে নিয়োজিত থাকা লোকটির কাছে সব কিছু জেনে মনস্থ করলেন তিনি ও এ লাভজনক কাজটি হাতে নেবেন।

(ক) পুকুরের উপর ঘরটি কি চাষের জন্য তৈরী হয়েছে?

(খ) এই পদ্ধতিতে ঘরটি পুকুর পাড় থেকে ১ মিটার দূরে নির্মাণ করতে হয় কেন?

(গ) ১০ শতক পুকুরের জন্য হাঁস-মাছের (প্রজাতি সহ পরিমাণ নির্মাণ কর)

(ঘ) “বাংলাদেশের বেকারত্ব দূরীকরণে চিত্রের চাষ পদ্ধতিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।” উক্তিটির যথাযথ বিচার কর।

ঘ-বিভাগ

৮। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

সুরমা নদীর পাড়ে টিলার উপরে বসবাস করেন রাকীব। বসতভিটার, ১৫ শতাংশ জমি ছাড়া তার আর কোনো জমি নেই। পাহাড়ি বন্যা আর বৃষ্টিতে বসত ভিটার পতিত জমি টুকুও প্রতি বছর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বন কর্মকর্তার পরামর্শে ঐ জমিতে বনায়ন করায় তার আর ঐ ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়নি।

(ক) বনের গুরুত্বকে কয়ভাগে ভাগ করা যায়?

(খ) টাকা দিয়ে মূল্যায়ন করা যায় না গাছের এমন একটি গুন বর্ণনা কর।

(গ) কী ধরনের গাছ লাগিয়ে রাকীব উপকৃত হয়েছিল বর্ণনা কর।

(ঘ) তোমার এলাকায় উদ্ভূত দুটি সমস্যা যা গাছপালা রোপনের মাধ্যমে সমাধান করা যায় তা বিশ্লেষণ কর।

৯। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

মামুন ছুটিতে গ্রামে দাদার বাড়ি বেড়াতে গেলে হঠাৎ তার কোষ্ঠ কাঠিন্য হয়। দাদা তাকে হরীতকী ফলের গুড়া পানিতে ভিজিয়ে খেতে দিলে তার কোষ্ঠ কাঠিন্য দূর হয়। দাদা তাকে জানালেন গ্রামে অনেক ভেষজ উদ্ভিদ যেমন- আমলকী, হরীতকী, বহেরা, নিম, অর্জুন, অশোক এ উদ্ভিদের বিভিন্ন অংশ যেমন পাতা, বাকল, ফুল, ফল বিভিন্ন ধরনের অসুখ নিরাময় সহ কীটপতঙ্গ দমন ও ভিটামিনের উৎস হিসেবেও কাজ করে।

(ক) ভেষজ উদ্ভিদ কী?

(খ) নিম গাছের কোন অংশ কৃমি দমন ও দাঁত শক্ত করতে ব্যবহৃত হয়?

(গ) সুমনের দাদার ব্যবহৃত ভেষজ উদ্ভিদ ব্যতীত ঐ রোগ নিরাময়ে অপর একটি ভেষজ উদ্ভিদের নাম উল্লেখপূর্বক তার পরিচিতি বর্ণনা কর।

(ঘ) আধুনিক চিকিৎসার সুযোগ বঞ্চিত গ্রামীণ মানুষের চিকিৎসায় ভেষজ উদ্ভিদ কীভাবে ভূমিকা রাখতে পারে, ব্যাখ্যা কর।