মডেল টেষ্ট পরীক্ষার ইসলাম শিক্ষা সৃজনশীল প্রশ্ন

মডেল টেষ্ট পরীক্ষা- ২০২১

অষ্টম শ্রেণী

বিষয়ঃ ইসলাম শিক্ষা (সৃজনশীল)

সময়ঃ ২ ঘণ্টা ১০ মিনিট  পূর্ণমানঃ ৬০

(দ্রষ্টব্য: প্রত্যেক অংশ থেকে কমপক্ষে ২টি করে মোট ৬টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।)

ক-অংশ

১। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

আমিন সাহেব ক্লাসে রিসালাত ও খাতমে নবুওয়্যাত বিষয়ে আলোচনা করছেন। ছাত্র নেসার বলল- স্যার আমার একজন প্রতিবেশী বলেছেন- নবুওয়্যাত এর দরজা সব সময় খোলা। এখনো নবী আসতে পারেন। একথা শুনে আমিন স্যার বললেন,- একথা ঠিক নয়। কারণ আল্লাহ সূরা আহযাবের ৪০নং আয়াতে বলেছেন, মুহম্মদ (স) তোমাদের কোন পুরুষের পিতা নন, বরং তিনি আল্লাহর রাসূল এবং সর্বশেষ নবী।

(ক) রিসালাত অর্থ কী?

(খ) খাতমে নবুওয়্যাত বলতে কী বুঝানো হয়েছে?

(গ) নেসারের প্রতিবেশীর খাতমে নবুওয়্যাতের প্রতি অবিশ্বাসকে তুমি কীভাবে ব্যাখ্যা করবে?

(ঘ) বরং তিনি আল্লাহর রাসূল এবং সর্বশেষ নবী- বিশ্লেষণ কর।

২। লোকমান সাহেব নিসাব পরিমান সম্পদের মালিক। তার এক প্রতিবেশী যাকাতের টাকা চাইলে, তিনি আগামী রমযান মাসে আসতে বলেন। রমযান মাস আসলে বলেন, এখনো হিসাব করিনি। ইতোমধ্যে তিনি সিডরে ক্ষতিগ্রস্তদের পূনর্বাসন কাজে প্রচুর টাকা পয়সা ব্যয় করেন। প্রসঙ্গক্রমে তার বাবা তাকে বলেন- যাকাত গরিবের হক। নির্ধারিত সময়ে হিসেব করে যাকাত আদায় করতে হয়। পবিত্র কুরআনে আছে তাঁদের (ধনীদের) ধন-সম্পদে অবশ্যই দরিদ্র ও বঞ্চিতদের অধিকার রয়েছে।

(ক) যাকাত শব্দের অর্থ কী?

(খ) নিসাব বলতে কী বোঝ? সংক্ষেপে ব্যাখ্যা কর।

(গ) লোকমান সাহেবের পুনর্বাসন কাজে আর্থিক সহায়তায় যাকাত আদায় হয়েছে কী? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) ধনীদের সম্পদে অবশ্যই দরিদ্র ও বঞ্চিতদের অধিকার আছে বিশ্লেষণ কর।

৩। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

মফিজ ও মুজিবর পল্টন এলাকায় পাশাপাশি দোকানে ফল বিক্রয় করে। তাদের দুজনের মধ্যে মফিজ ওজনে কম দেয়, কারণ সে আখিরাতে বিশ্বাস করে না। অন্যদিকে মুজিবর কাউকে ঠকায় না। কারণ সে আখিরাতে বিশ্বাস করে। সে মনে করে কারো সাথে প্রতারণা করলে জাহান্নামের আগুনে পুড়তে হবে এবং সততা ও বিশ্বস্ততার পরিনাম জান্নাত।

(ক) জান্নাত অর্থ কী?

(খ) আমরা আখিরাতে বিশ্বাস করব কেন?

(গ) জান্নাত লাভ করতে হলে মফিজকে কী করতে হবে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) কুরআন হাদীসের আলোকে প্রতারণা বর্জনের গুরুত্ব বিশ্লেষণ কর।

৪। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এব প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

জিহাদ সম্পর্কে শাহিনের সঠিক ধারণা ছিল না। সে মনে করত জিহাদ হল যুদ্ধ। অথচ শুধু যুদ্ধের নাম জিহাদ নয়। যুদ্ধ হল জিহাদের সর্বশেষ স্তর। মসজিদের ইমাম সাহেবের কাছ থেকে সে একথা জানতে পারে। বিস্তারিত জানার পর শাহিনের বোধোদয় হয়েছে যে, জিহাদের নামে যারা সাধারণ মানুষের উপর আক্রমন করে, অকারণে লোক হত্যা করে তারা ইসলামের বড় দুশমন।

(ক) জিহাদ কাকে বলে?

(খ) জিহাদে আকবর বলতে কী বোঝায়? ব্যাখ্যা কর।

(গ) ইসলামের দুশমনদের বিরুদ্ধে শাহিনের কী করণীয় রয়েছে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) কুরআন ও হাদীসের আলোকে জিহাদের গুরুত্ব বিশ্লেষণ কর।

৫। নিচের অনুচ্চেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

সূরা আল-বায়্যিনাহর দুটি আয়াতে আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, নিশ্চয়ই আহলে কিতাবের মধ্যে যারা কুফরী করে তারা এবং মুশরিকগন জাহান্নামের আগুনে স্থায়ীভাবে অবস্থান করবে। তারাই সৃষ্টির অধম। নিশ্চয় যারা ঈমান আনে ও সৎ কাজ করে তারাই সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ। আয়াত দু’টি থেকে বোঝা যায়, কাফির মুশরিকরা সৃষ্টির অধম এবং সৎকর্মশীল ঈমানদারগণ সৃষ্টি সেরা।

(ক) সূরা আল বায়্যিনাহ কোথায় অবতীর্ণ হয়?

(খ) সৎকর্মশীল ঈমানদারগণ কেন সৃষ্টির সেরা তা ব্যাখ্যা কর।

(গ) আয়াত দুটি থেকে আমরা কী শিক্ষা লাভ করতে পারি?

(ঘ) কাফির-মুশরিকগণ সৃষ্টির অধম- উক্তিটি বিশ্লেষণ কর।

৬। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

একজন ভিক্ষুক রফিকের কাছে ভিক্ষা চাইলে সে বলে, তুমি তো সুস্থ সবল, ভিক্ষা করো কেন? কোন কাজ করতে পার না? রফিকের বন্ধু শফিক ভিক্ষুককে কিছু দিতে চাইলে রফিক তাকে নিষেধ করে এবং বলে, মহানবী (সঃ) ভিক্ষা করা পছন্দ করতেন না বরং স্বাবলম্বী হওয়া পছন্দ করতেন। মহানবী (সঃ) বলেছেন, আল্লাহ তায়ালা উপার্জনশীল বান্দাদের পছন্দ করেন।

(ক) স্বাবলম্বন অর্থ কী?

(খ) স্বাবলম্বী হওয়া বিষয়টি ব্যাখ্যা কর।

(গ) একজন সুস্থ সবল ভিক্ষুক স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য কুরআন হাদীস থেকে কী শিক্ষা নিতে পারে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) আল্লাহ তায়ালা উপার্জনশীল বান্দাদের পছন্দ করেন’, বিভিন্ন নবী রাসূলের ঘটনা উল্লেখ করে বিশ্লেষণ কর।

৭। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

মক্কা বিজয় প্রসঙ্গে হাসানের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষক বলেন, মক্কা বিজয়ের পর মক্কাবাসীরা আশংকা করেছিল মুহাম্মদ (সঃ) তাদের অপরাধের প্রতিশোধ নেবে। কিন্তু মহানবী (সঃ) তা করেননি। তিনি বলেন, আজ তোমাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই। যাও তোমরা মুক্ত স্বাধীন।’ তিনি আরো বলেন, ‘আবু সুফিয়ানের ঘরে যে আশ্রয় নেবে সেও নিরাপদ।

(ক) মক্কা বিজয় হিজরি সনের কোন মাসে সংঘটিত হয়?

(খ) মক্কা বিজয়ের মুল কারণ ব্যাখ্যা কর।

(গ) হাসান মক্কা বিজয় থেকে শিক্ষা নিতে পারে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) আবু সুফিয়ানের ঘরে যে আশ্রয় নেবে সেও নিরাপদ- উক্তিটি বিশ্লেষণ কর।

৮। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

আজাদ সাহেব একজন ধর্মভীরু মুসলমান। প্রতিদিন প্রভাতেও শয়নকালে আয়াতুল কুরসি পাঠ করেন। তিনি তার ছেলে আবিদকে আয়াতুল কুরসি শিখিয়েছেন। আবিদও নিয়মিত আয়াতুল কুরসি পাঠ করে। কারণ সে তার বাবার কাছ থেকে জেনেছে। আয়াতুল কুরসির ফযীলাত অনেক।

(ক) কুরসি শব্দের অর্থ কী?

(খ) আবিদ কেন নিয়মিত আয়াতুল কুরসি পাঠ করে?

(গ) নিয়মিত আয়াতুল কুরসি পাঠের ফলে আবিদ ইহকাল ও পরকালে কী কী সফলতা অর্জন করবে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) আয়াতুল কুরসির তাৎপর্য বিশ্লেষণ কর।

৯। নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাওঃ

আলী একজন তরুণ শিক্ষার্থী। সে নিয়মিত কুরআন, হাদিস ও ইসলামী সাহিত্য বিষয়ক পুস্তকাদি অধ্যায়ন করে। ইসলামী শিক্ষা গ্রহণের ফলে সে জেনেছে, উত্তম চরিত্র ব্যক্তির জীবনকে সুন্দর ও উন্নত করে। চরিত্র খারাপ হলে মানুষের সাথে শয়তান ও পশুর মধ্যে কোন পার্থক্য থাকে না। তাই সে নিজেকে চরিত্রবান করে গড়ে তুলেছে। সমাজের সকল মানুষ আলীকে ভালবাসে ও শ্রদ্ধা করে।

(ক) আখলাক শব্দটি কিসের বহুবচন?

(খ) আখলাকে হামীদা ও আখলাকে যামীমা বলতে কী বোঝায়? ব্যাখ্যা কর।

(গ) ইসলামী শিক্ষা কিভাবে আলীকে উত্তম চরিত্রের অধিকারীকরে তোলে? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) কুরআন হাদীসের আলোকে উত্তম আখলাকের সুফল বিশ্লেষণ কর।